default-image

বেলা তিনটার পর থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা শিক্ষার্থীদের জন্য শিথিল করেছে প্রশাসন। নিষেধাজ্ঞা জারির পর শিক্ষার্থীদের ক্ষোভের মুখে আজ শুক্রবার তা প্রত্যাহার করা হয়। তবে বহিরাগতদের জন্য এ নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে।

বৃহস্পতিবার প্রক্টর দপ্তর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটি ফটকে নিষেধাজ্ঞা জারির বিজ্ঞপ্তি টানানো হয়েছিল। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার কাজলা, বিনোদপুর ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে বিজ্ঞপ্তি টানানো হয়। এতে বলা হয়, ‘করোনার কারণে বেলা তিনটার পর থেকে শিক্ষার্থীসহ বহিরাগত ও দর্শনার্থীরা কেউ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারবে না।’ তবে বিজ্ঞপ্তিতে বিশ্ববিদ্যালয় কিংবা কোনো দপ্তরের নাম উল্লেখ করা হয়নি।

বিজ্ঞপ্তির কারণে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই শিক্ষার্থীদের ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। এ নিয়ে অনেক শিক্ষার্থী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাঁদের অনেকে অভিযোগ করেন, ফটকে নিরাপত্তা প্রহরীরা শিক্ষার্থীদের প্রবেশে বাধা দিলেও বহিরাগতদের ক্যাম্পাসে ঢুকতে দিয়েছেন। নিষেধাজ্ঞার কারণে শুক্রবার বিকেলেও ক্যাম্পাসের বিভিন্ন ফটকে শিক্ষার্থী ও দর্শনার্থীদের জটলা বাঁধে। শিক্ষার্থীরা প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমানকে বিষয়টি জানান। পরে প্রক্টর শিক্ষার্থীদের জন্য ক্যাম্পাসে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা শিথিল করেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর লুৎফর রহমান বলেন, ক্যাম্পাস বন্ধ থাকা সত্ত্বেও প্রশাসনিক ভবনের পেছনে বহিরাগতদের ব্যাপক জটলা থাকে। কিন্তু অফিসগুলো বেলা একটার দিকে বন্ধ হয়ে যায়। তাই বহিরাগতদের জন্যই নোটিশটি দেওয়া হয়েছিল। পরে শিক্ষার্থীদের দাবির কারণে শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়-সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের জন্য নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন