হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গত জুন ও জুলাই মাসে এই হাসপাতালে দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যা ১০ থেকে ২৫-এর মধ্যে ওঠানামা করছে। তবে চলতি মাসে মৃত্যুর সংখ্যা কয়েকবার ১০-এর নিচে নেমেছে। জুলাই মাসে করোনা আর উপসর্গ নিয়ে এই হাসপাতালে মারা গেছেন সর্বোচ্চ ৫৩৫ জন। জুন মাসে মারা গেছেন ৩৪৬ জন। আর আগস্টে এ পর্যন্ত ৩৫৪ জন মারা গেছেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার শামীম ইয়াজদানী জানিয়েছেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ওয়ার্ডে নতুন ১৪ রোগী ভর্তি হয়েছেন। একই সময়ে সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়েছেন ১৯ জন। আজ সকাল পর্যন্ত হাসপাতালে মোট ভর্তি আছেন ১৫৩ জন। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ ৭৪ জন, সন্দেহভাজন ৫৫ জন এবং করোনা নেগেটিভ হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন ২৪ জন।

বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর মধ্যে রাজশাহী জেলার সর্বোচ্চ ৭২ জন আছেন। বাকিদের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২৬ জন, নওগাঁর ২০ জন, পাবনার ১৬ জন, নাটোরের ৯ জন, কুষ্টিয়ার ৫ জন, সিরাজগঞ্জের ২ জন এবং জয়পুরহাট, মেহেরপুর ও চুয়াডাঙ্গার ১ জন করে হাসপাতালে ভর্তি আছেন। হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে বর্তমানে মোট ২৮৬টি শয্যা আছে।

এদিকে গতকাল সোমবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের দুই ল্যাবে রাজশাহী জেলার মোট ২৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে ৩০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার তুলনায় শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৪৫।

এদিকে কিট না থাকার কারণে জেলায় র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন পদ্ধতিতে কোনো পরীক্ষা হয়নি। ফলে আজ সকালে রাজশাহী সিভিল সার্জন দপ্তর থেকে পাঠানো প্রতিবেদনেও ২৬২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩০ জনের করোনা শনাক্তের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এ নিয়ে রাজশাহী জেলায় মোট শনাক্ত করোনা রোগীর সংখ্যা ২৭ হাজার ৩২। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ২ জনের মৃত্যু নিয়ে জেলায় করোনায় মোট ২৯৬ জনের মৃত্যু হলো।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন