বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ভুক্তভোগী গোলাম ফারুক মোল্লা বলেন, পুটিয়াখালী মীরের হাট এলাকায় তাঁর একটি ভবন আছে। ওই ভবন জমিসহ ৩৫ লাখ টাকায় বিক্রির জন্য চুক্তি হয়। শুক্রবার সকালে ক্রেতা জহিরুল ও মহিউদ্দিনদের বাড়িতে গিয়ে তাঁদের মা আনোয়ারা পারভিনের কাছ থেকে বায়নার ১০ লাখ টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় পথের মধ্যে মিরেরহাটে ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম, বাদল, মনির, তাওহীদসহ ১০ থেকে ১৫ জন হাতে লোহার হাতুড়ি, দা, রড, লাঠি নিয়ে হামলা চালিয়ে তাঁর শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে ১০ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যান। পরে তিনি জীবন বাঁচাতে পাশের একটি দোকানে আশ্রয় নেন।

ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সমাজে তাঁকে হেয় করতে এমন অভিযোগ করা হচ্ছে। ছোট ভাই আবুল কালাম আজাদ ও নারীদের কিছু ছবি স্থানীয় বাজারে টাঙিয়েছেন ফারুক মোল্লা। খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বাজারে গিয়েও ফারুককে পাননি। পরে শুক্রবার সকালে দুর্বৃত্তরা তাঁদের কী করেছে তা তাঁর জানা নেই।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন