বিজ্ঞাপন

শিশুটি উপজেলার পিংড়ি গ্রামের মো. ফারুক হাওলাদারের ছেলে। সে আজিজিয়া নূরানি কিন্ডারগার্টেন মাদ্রাসার দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত।

জোয়ারের পানিতে ফসলের মাঠ তলিয়ে গিয়ে পুকুরের সঙ্গে সমান হয়ে গেছে। সিয়াম মাঠের পানিতে নেমে পুকুরে তালিয়ে যায়।

সিয়ামের বাবা মো. ফারুক হাওলাদার বলেন, ব্যবসার কারণে তিনি উপজেলার মেডিকেল মোড় এলাকায় বাসা ভাড়া করে পরিবার নিয়ে থাকেন। বুধবার সকাল থেকেই পাশের ফসলের মাঠে সহপাঠীদের সঙ্গে খেলা করছিল সিয়াম। দুপুর থেকে তাকে পাওয়া যায়নি। জোয়ারের পানিতে ফসলের মাঠ তলিয়ে গিয়ে পুকুরের সঙ্গে সমান হয়ে গেছে। সিয়াম কোনো একসময় মাঠের পানিতে নেমে পুকুরে তালিয়ে যায়। পরে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে মাঠের মধ্যের পুকুরে ভাসমান অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে। উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিয়াম মৃত ঘোষণা করেন।

রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়া লাশ তাঁদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন