রাতের আঁধারে সুগন্ধা নদী থেকে বালু তোলার সময় আটক ৬, জরিমানা

ঝালকাঠি জেলার মানচিত্র
প্রতীকী ছবি

ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় সুগন্ধা নদীতে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু তোলার দায়ে ছয়জনকে তিন লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বশির গাজী ও মং এছেন যৌথভাবে এ অভিযান পরিচালনা করেন।

অর্থদণ্ড পাওয়া ব্যক্তিরা হলেন ঝালকঠির নলছিটি পাওতা গ্রামের মো. মোস্তফা (৬০), নলছিটি প্রেমহার গ্রামের সাইফুল ইসলাম (২৫), কুমারখালী এলাকার ইমরান হোসেন (২০), উত্তমপুর এলাকার শাহিন সরদার (২০), বরিশাল জাগুয়া এলাকার রাজীব মুন্সি (৩৮) ও ভোলার মো. নাহিদ (২০)।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এনডিসি বশির গাজী প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের কাছে এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের অভিযোগ, রাতের আঁধারে সুগন্ধা নদী থেকে অবৈধভাবে একটি চক্র বালু উত্তোলন করে নিয়ে যায়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার রাতে আমরা অভিযান পরিচালনা করে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ছয়জনকে আটক করি। ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাঁরা অপরাধ স্বীকার করায় প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক মাসের জেল প্রদান করা হয়। আটক ছয়জন ভ্রাম্যমাণ আদালতে তিন লাখ টাকা বুঝিয়ে দিয়ে মুক্তি পান।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বশির গাজী আরও বলেন, ঝালকাঠিতে কোনো নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা যাবে না। বালু ব্যবসায়ীদের অবৈধ ব্যবসা বন্ধ করে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। অবৈধ বালু ব্যবসায়ীদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। তাঁদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।