default-image

নওগাঁর রানীনগর রেলওয়ে স্টেশনের পাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা আড়াই শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। স্থাপনাগুলো বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চল জোনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বিভাগীয় ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান আজ মঙ্গলবার সকালে ওই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন।

বিজ্ঞাপন

উচ্ছেদ অভিযানে অংশ নেওয়া কর্মকর্তাদের সূত্রে জানা যায়, রানীনগর স্টেশনের রেললাইনের পশ্চিম পাশ দিয়ে চলে যাওয়া সড়কের দুই পাশে ২৮৪টি ইটের তৈরি আধা পাকা ভবন নির্মাণ করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান চালু করেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। রেল কর্তৃপক্ষ এসব স্থাপনা সরিয়ে নিতে বারবার তাগাদা দিলেও উল্টো আরও স্থাপনা নির্মাণ করা হয়। অবশেষে মঙ্গলবার রেল পুলিশের সহায়তায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

বিজ্ঞাপন

একটি আধা পাকা ভবনের মালিক মামুন হোসেন জানান, স্থাপনা নির্মাণকারীদের বৈধ কাগজপত্র করে দেওয়া হবে, প্রয়াত সাংসদ ইসরাফিল আলমের এমন আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে স্থাপনাগুলো নির্মাণ করা হয়েছিল। কিন্তু বৈধ কাগজপত্র আর দেওয়া হয়নি।

বিজ্ঞাপন

রেলওয়ে পাকশী বিভাগের বিভাগীয় ভূসম্পত্তি কর্মকর্তা মো. নুরুজ্জামান বলেন, দখল ও অবৈধ স্থাপনা নির্মাণের সময় বারবার নির্মাণকাজ বন্ধ করতে অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু তাতে কোনো ফল হয়নি। তাই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে রেলওয়ের জায়গা দখলমুক্ত করা হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0