default-image

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গতকাল শনিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী মির্জাপুর এলাকার একটি ছাত্রীনিবাস থেকে ওই ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

মারা যাওয়া ছাত্রীর নাম মোবাসসিরা তাহসিন ওরফে ইরা। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাঁর বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলায়।

উদ্ধারের পর লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুলিশ বলছে, মোবাসসিরা আত্মহত্যা করেছেন বলে তারা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে।

বিজ্ঞাপন

রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপকমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা জানতে পেরেছেন, দিবাগত রাত একটার দিকে ছাত্রীনিবাসের কয়েকজন ছাত্রী পড়াশোনার ব্যাপারে কথা বলার জন্য মোবাসসিরার কক্ষে যান। তাঁরা মোবাসসিরার কক্ষের দরজা বন্ধ দেখতে পান। ডাকাডাকি করে তাঁর সাড়া না পেলে তাঁরা বিষয়টি ছাত্রীনিবাসের মালিককে জানান। পরে ছাত্রীনিবাস কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থলে আসে। তারা একপর্যায়ে কক্ষের দরজা ভেঙে ফেলে। এ সময় কক্ষের ভেতরে মোবাসসিরার ঝুলন্ত লাশ দেখা যায়।

ছাত্রীনিবাস কর্তৃপক্ষ পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে দিবাগত রাত দুইটার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। তারা লাশটি উদ্ধার করে আজ রোববার ভোররাত চারটার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠায়।

পুলিশ জানিয়েছে, আলামত দেখে তারা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে, ওই ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সভাপতি হাসিবুল আলম প্রধান জানান, তৃতীয় বর্ষের দুটি পরীক্ষা এখনো বাকি রয়েছে। ওই পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য মোবাসসিরাসহ এই বর্ষের শিক্ষার্থীরা রাজশাহীতে এসেছেন। মোবাসসিরার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে তিনি রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন