বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ সময় স্থানীয় শিক্ষক দিদারুল ইসলাম, ব্যবসায়ী জিলান ভূঁইয়া, দুলাল মোল্লা ও আমির হোসেন, যুবলীগ নেতা জমির আলী ও ছাত্রলীগ নেতা আরিফ খান বক্তব্য দেন। বক্তারা বলেন, নিয়ম না মেনে পাথরবোঝাই গাড়ি চলাচলের কারণে ডেমরা কালিগঞ্জ সড়ক চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কটির কাঞ্চন সেতু থেকে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পর্যন্ত ছয় কিলোমিটার মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। সড়কটিতে ইজিবাইক ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা উল্টে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। প্রসূতি নারীসহ অসুস্থ ও বৃদ্ধরা চলাচল করতে পারছেন না।

default-image

বক্তারা আরও বলেন, খানাখন্দের কারণে যানবাহন উল্টে এলাকার অন্তত সাতজনের হাত-পা ও মেরুদণ্ড ভেঙেছে। যাঁরা আহত হয়েছেন, তাঁরা অধিকাংশই নিম্ন আয়ের মানুষ। সড়ক সংস্কার না হওয়ায় দুর্ঘটনার কবলে পড়ে তাঁরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

এ কর্মসূচিতে সড়কে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মেরুদণ্ডে আঘাত পাওয়া নসু উদ্দিন নামের স্থানীয় এক নির্মাণশ্রমিক মানববন্ধনে দুর্দশার কথা তুলে ধরেন। এ সময় মানববন্ধন কর্মসূচির সামনে সড়কের গর্তে একটি ইজিবাইক উল্টে মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থী আহত হন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন