বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অভিযান দলের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, রূপপুরে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরি হচ্ছে। প্রকল্পে প্রায় ১৭ হাজার মানুষ কাজ করেন। ফলে প্রকল্প আশপাশের এলাকায় পাবনা-কুষ্টিয়া মহাসড়কের দুই পাশ দখল করে অবৈধভাবে খাবার হোটেল থেকে শুরু করে কাঁচা তরকারি বাজার ও দোকানপাট গড়ে উঠছিল। এতে প্রকল্পের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। ফলে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে খাবার হোটেল, মুদিদোকান, মাছের দোকান, ফলের দোকান, চায়ের দোকান, সবজি দোকানসহ বিভিন্ন ধরনের শতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

ইউএনও পি এম ইমরুল কায়েস বলেন, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প দেশের অতি গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রকল্প। প্রকল্পের নিরাপত্তার স্বার্থে চারপাশ ফাঁকা থাকা জরুরি। কিন্তু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বাধা-নিষেধ না মেনে দোকান তৈরি করে ব্যবসা করছিলেন। অভিযানে সব দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। একই সঙ্গে দোকানমালিকদের সতর্ক করা হয়েছে। আবার দখল করলে তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন