বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সাধারণ সম্পাদক রতন কান্তি ‌দত্তের সঞ্চালনায় কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য দেন জেলা জাসদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আকতার হোসেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের জেলা আহ্বায়ক আবদুন নূর, কমিউনিস্ট পার্টির জেলা সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম, জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রদ্যোৎ নাগ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ওয়াসেল সিদ্দিকী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ইব্রাহিম খান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের আহ্বায়ক মনির হোসেন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, হেফাজতের সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর ছয় মাস গেলেও ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনটি এখনো সংস্কার করা হয়নি। চালু করা হয়নি পূর্বনির্ধারিত সব আন্তনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি। ফলে ছাত্র, শিক্ষক, রোগী, ব্যবসায়ী, চাকরিজীবীসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার লাখ লাখ মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন।

জনদুর্ভোগ লাঘবে অবিলম্বে রেলওয়ে স্টেশনটি সংস্কার করে এ ভোগান্তির অবসান ঘটানোর দাবি জানান বক্তারা। ১৫ দিনের মধ্যে এই স্টেশনে সব আন্তনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি নিশ্চিত করা না হলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হয়ে সারা দেশের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তাঁরা।

গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতের সহিংসতার ঘটনার সময় ১৫ জন নিহত হন। ওই সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনসহ বিভিন্ন স্থাপনায় ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞ চলে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন