default-image

রংপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের জারি করা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সেই সঙ্গে নিষেধাজ্ঞা তুলে না নিলে কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়।

আজ রোববার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধন শেষে প্রতিবাদী বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাসের প্রশাসনিক ভবন, একাডেমিক ভবনের সামনে দিয়ে শেখ রাসেল চত্বরে এসে শেষ হয়।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জানুয়ারি জারি করা এক নোটিশে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন ও উপাচার্যের বাসভবনের প্রবেশপথ এবং একাডেমিক ভবন ও প্রশাসনিক ভবনের সামনে সব ধরনের সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়।

বিজ্ঞাপন


মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ দিনের পর দিন ক্যাম্পাসে না থেকে ক্যাম্পাসে অচলাবস্থা তৈরি করেছেন। তাঁর কারণে বিশ্ববিদ্যালয়টি পিছিয়ে যাচ্ছে। তাঁর অপকর্মের বিরুদ্ধে যেন কেউ কথা বলতে না পারে তাই তিনি ক্যাম্পাসে মিছিল–মিটিং বন্ধের আইন জারি করেছেন। অবিলম্বে এই সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে, তা না হলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর মুঠোফোনে ফোন দেওয়া হলে তিনি ধরেননি।
উপাচার্যের একান্ত সচিব আমিনুর রহমান বলেন, সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই আদেশ জারি করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে শিক্ষক সমিতির সভাপতি ফরিদুল ইসলাম বলেন, ‘উপাচার্যের মাসের পর মাস ক্যাম্পাসে অনুপস্থিতি থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা দেখা দিয়েছে। সেই সঙ্গে নানা অনিয়মের চিত্র উঠে আসছে। এর প্রতিবাদ কেউ যাতে করতে না পারে, এ জন্য সভা–সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আমরা এই অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত মানি না।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন