default-image

দিনাজপুরে চিরিরবন্দর সীমান্তে মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে অভিযানে গিয়ে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) হাতে আটক হন র‍্যাবের দুই সদস্য। রাত ১০টার দিকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে পতাকা বৈঠক করে তাঁদের ফেরত দেয় বিএসএফ।

দিনাজপুর র‍্যাব-১৩–এর (সিপিসি-১) কোম্পানি কমান্ডার লে. কর্নেল আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, র‍্যাব সদস্যরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে অভিযান চালান। তাঁরা একজনকে গ্রেপ্তারও করেন। তখন অন্য মাদক ব্যবসায়ীরা ওই ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নিতে হামলা চালায়। চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু হলে বিএসএফ গিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের হাত থেকে দুই র‍্যাব সদস্যকে উদ্ধার করে সীমান্ত ফাঁড়িতে নিয়ে যান। রাত ১০টার দিকে বিজিবির সঙ্গে পতাকা বৈঠক শেষে দুই র‍্যাব সদস্যকে ফেরত দেয় বিএসএফ।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা যায়, সরস্বতীপুর গ্রামের কিছু অংশ বাংলাদেশ ও কিছু অংশ ভারতে পড়েছে। গোপনে পাওয়া সংবাদের ভিত্তিতে সরস্বতীপুর সীমান্তে মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে মঙ্গলবার দুপুরে অভিযানে নামেন দিনাজপুর র‍্যাব-১৩-এর পাঁচজন সদস্য। দুটি মোটরসাইকেলে করে সাদাপোশাকে র‍্যাব সদস্যরা আসেন। তাঁরা সরস্বতীপুর গ্রাম থেকে কিছু দূরে চিকনডাঙ্গায় যান। মোটরসাইকেলসহ সেখানে দুজন র‍্যাব সদস্য অবস্থান নেন। অন্য তিন র‍্যাব সদস্য ক্রেতা সেজে মাদক ব্যবসায়ীদের ধরতে যান। সরস্বতীপুরের ভারতীয় অংশে তাঁরা এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে হাতকড়া পরান। ওই ব্যক্তির চিৎকার শুনে তাঁর সহযোগীরা গিয়ে র‍্যাবের ওপর হামলা করেন। তখন র‍্যাব সদস্যরা গুলি ছুড়ে চলে যান। গুলির শব্দ শুনে চিকনডাঙ্গায় থাকা দুই র‍্যাব সদস্য এগিয়ে যান। এ সময় সেখানে বিএসএফ সদস্যরা গিয়ে র‍্যাবের দুই সদস্যকে নিয়ে যান।

মন্তব্য পড়ুন 0