default-image

নীলফামারীর সৈয়দপুরে সরকারের ঘোষিত লকডাউন উপেক্ষা করে একটি কিন্ডারগার্টেনে পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। আজ বুধবার সকালে শহরের টেকনিক্যাল কলেজপাড়া এলাকায় এ দৃশ্য দেখা গেছে। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার এই পরিস্থিতির মধ্যে কোমলমতি শিশুদের ডেকে নিয়ে পরীক্ষা গ্রহণের ঘটনায় এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সেই সঙ্গে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এই অবস্থায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তাঁরা।

সরেজমিনে দেখা যায়, শহরের টেকনিক্যাল কলেজপাড়া এলাকার আল হেরা হিফজুল কুরআন অ্যান্ড নূরানী কিন্ডারগার্টেন নামের প্রতিষ্ঠানটি খোলা। অফিসকক্ষে প্রায় সব শিক্ষকই উপস্থিত। দ্বিতল ভবনের নিচতলায় শ্রেণিকক্ষগুলো ফাঁকা। কিন্তু দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষে চলছে পরীক্ষা। সেখানে অভিভাবকেরাও উপস্থিত। শিশুশ্রেণির ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, শহরের টেকনিক্যাল কলেজপাড়া এলাকার আল হেরা হিফজুল কুরআন অ্যান্ড নূরানী কিন্ডারগার্টেন নামের প্রতিষ্ঠানটি খোলা। শিশুশ্রেণির ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে।

পঞ্চম শ্রেণির পরীক্ষার্থী রেজওয়ানুল ফেরদৌস বলে, মাদ্রাসার পরিচালক তাদের অভিভাবকদের মুঠোফোনে ডেকে নিয়ে পরীক্ষা দিতে বলেছেন। তাই তারা পরীক্ষা দিতে এসেছে। আজ বাংলা পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে। একই কথা জানাল আরেক পরীক্ষার্থী আদনান। সে শিশুশ্রেণির আরবি পরীক্ষা দিচ্ছে।

এ সময় সাংবাদিক দেখে সেখানে প্রবেশে বাধা দেন এবং হম্বিতম্বি করেন মাদ্রাসার পরিচালক আল মাহদী। তিনি বলেন, ‘আমাদের বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের এনে প্রশ্নপত্র বুঝিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তারা বাসায় গিয়ে বোর্ডের দেওয়া খাতায় পরীক্ষা দেবে। এখানে কোনো পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে না।’

জানতে চাইলে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. নাসিম আহমেদ মুঠোফোন প্রথম আলোকে বলেন, তিনি বিষয়টি দেখছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন