বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ বুধবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। এর আগে বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে মানববন্ধনে যোগ দেন এলাকাবাসী। বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত চলে মানববন্ধন। এতে জেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীসহ পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, মেয়র আবু তাহের গত পাঁচ বছরে তিনবার কর বৃদ্ধি করেছেন। করোনাকালে মেয়র নিজের সুবিধার জন্য নতুন করের বোঝা বাসিন্দাদের ঘাড়ে চাপিয়ে দিচ্ছেন। আগে যাঁর ২ হাজার টাকা কর ছিল, তাঁর নতুন কর ধার্য হয়েছে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ৭০ থেকে ৮০ গুণও কর বৃদ্ধি করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা আবদুর রহমান বলেন, আগে তাঁর গৃহকর ছিল ২০০ টাকা। সেটি বাড়িয়ে ৬ হাজার ৮০০ টাকা করা হয়েছে।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক মোজাম্মেল হায়দার মাছুম ভূঁইয়া, কৃষিবিষয়ক সম্পাদক আবদুল মতলব, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দীন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাকিব হোসেন, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক জিসান আল নাহিয়ান প্রমুখ।

পৌর কর্তৃপক্ষ বলছে, নিয়ম মেনে গৃহকর বাড়ানো হয়েছে। করোনাসহ বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত কর কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

পৌর মেয়র আবু তাহের মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, নিয়ম মেনে নতুন করে কর বাড়ানো হয়েছে। তা ছাড়া যাঁরা আপত্তি জানাচ্ছেন, তাঁদের কর কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এতে পৌরসভার বাসিন্দারা খুশি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন