default-image

লক্ষ্মীপুরে গত দুই মাসে ৬০ জন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্য বিভাগের, ২৯ জন। এর পরের অবস্থানে আছে পুলিশ বিভাগ। এই বিভাগের ১৬ জন সদস্য আক্রান্ত।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর থেকে সম্মুখ যোদ্ধা হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মী ও পুলিশ সদস্যরা। আক্রান্তদের চিকিৎসা সহায়তায় স্বাস্থ্যকর্মী এবং আক্রান্ত ব্যক্তির লাশ দাফনে পুলিশ সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। জেলার পাঁচটি উপজেলায় এ পর্যন্ত এই দুই বিভাগের ৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। এ ছাড়া লক্ষ্মীপুর জেলায় করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭২ জনে।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য মতে, জেলায় ৬০ জন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীর করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। তাদের মধ্যে জেলা প্রশাসনের ৩ জন, স্বাস্থ্য বিভাগের ২৯ জন, পুলিশের ১৬ জন, উপজেলা প্রশাসনের একজন, ব্যাংক কর্মকর্তা ৬ জন, আনসার ৪ জন ও আরইবির একজন।

করোনা সংক্রমিত তিনজন পুলিশ সদস্য ও দুজন স্বাস্থ্যকর্মী বলেন, অসতর্ক মুহূর্তে হয়তো তাঁরা সংক্রমিত হয়েছেন। তবে সংক্রমণ ধরা পড়ার পর একবারের জন্যও মনোবল হারাননি। মনে বল রাখার যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন তাঁরা। করোনায় ভয় পেয়ে নিজেকে গুটিয়ে নিলে চলবে না। করোনা লড়াইয়ে জয়ী হয়ে আবারও মানুষের পাশে আগের মতো থাকবেন বলে জানান তাঁরা।

জানতে চাইলে আজ রোববার লক্ষ্মীপুরের সিভিল সার্জন মো. আব্দুল গাফ্ফার প্রথম আলোকে বলেন, ৬০ জন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে অধিকাংশ সুস্থ আছেন। অন্যদের অবস্থা ভালোর দিকে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0