default-image

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে একজনকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় আরও একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে তাঁকে আটক করে রাতে গ্রেপ্তার দেখিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় দায়ের করা তিনটি মামলায় এ নিয়ে মোট গ্রেপ্তার হলেন ২৪ জন। লালমনিরহাট জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ইনচার্জ ওমর ফারুক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সর্বশেষ গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম মো. রাজু (৩৮)। তাঁর গ্রামের বাড়ি কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারীর মুশরত মদাতি গ্রামে। বর্তমানে বসবাস করছেন পাটগ্রাম পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডে। আজ শুক্রবার দুপুর দুইটার দিকে তাঁকে লালমনিরহাট আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে রবি থেকে বৃহস্পতিবার পাঁচ দফায় ২৩ জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে নেয় পুলিশ।

আজ শুক্রবার দুপুর দুইটার দিকে তাঁকে লালমনিরহাট আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এর আগে রবি থেকে বৃহস্পতিবার পাঁচ দফায় ২৩ জনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে নেয় পুলিশ।
বিজ্ঞাপন

গত ২৯ অক্টোবর সন্ধ্যায় বুড়িমারী মসজিদে পবিত্র কোরআন অবমাননার অভিযোগ তুলে রংপুরের শালবন মিস্ত্রিপাড়ার বাসিন্দা আবু ইউনুস মোহাম্মদ শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় গত শনিবার নিহতের চাচাতো ভাই সাইফুল আলম, পাটগ্রাম থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাহজাহান আলী ও বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ নেওয়াজ নিশাত বাদী হয়ে পৃথক তিনটি মামলা করেন।

ঘটনাস্থলের ভিডিও ফুটেজ দেখে আসামি শনাক্ত করে ওই তিন মামলায় এখন পর্যন্ত ২৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার একজন পাটগ্রাম পৌর সভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। বাকি ২৩ জনই বুড়িমারী ও শ্রীরামপুর এলাকার বাসিন্দা। দায়ের করা তিনটি মামলারই জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0