বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে গতকাল রাতে হামলার সময় আবুল কাশেমসহ তাঁর স্ত্রী ও দুই ছেলে আহত হয়েছেন। এর মধ্যে আবুল কাশেমকে গতকাল রাতেই গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর মাথায় ১০টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। আজ দুপুরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আবুল কাশেমের দুই ছেলে জাকির হোসেন ও জামিল হোসেন লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, আবুল কাশেমসহ তাঁর পরিবারের সদস্যরা স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহজাহান আলীর পক্ষে কাজ করছিলেন। বিষয়টি নৌকার প্রার্থী মোফাজ্জল হোসেনের পছন্দ হয়নি। এ অবস্থায় গতকাল রাত ১২টার দিকে মোফাজ্জল হোসেনের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন ব্যক্তি আবুল কাশেমের বাড়িতে হামলা চালান। এরপর হামলাকারীরা আবুল কাশেমসহ তাঁর ছেলেদের তুলে নিয়ে মোফাজ্জল হোসেনের বাড়িতে নিয়ে বেধড়ক মারধর করেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে মোফাজ্জল হোসেনের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহা আলম জানান, গতকাল রাতে আবুল কাশেমের বাড়িতে হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলায় রাজপুর ইউপি নির্বাচনের প্রার্থী মোফাজ্জল হোসেনকে আসামি করা হয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কাল রোববার রাজপুরসহ লালমনিরহাট সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন পরিষদ ও কালীগঞ্জের ৮টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন