default-image

ভোলার লালমোহন পৌরসভার হামীম একাডেমি সংলগ্ন সড়কে গতকাল রোববার রাত ১০টার দিকে জাহাঙ্গীর আলম (৪২) নামে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে-পিটিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। স্থানীয় লোকজন জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

দুর্বৃত্তরা পুনরায় হামলা চালাতে আসছে, খবর পেয়ে স্বজনেরা জাহাঙ্গীরকে নিয়ে পালিয়ে যান। পরে তাঁকে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরিবারটি আতঙ্কের মধ্যে আছে।

ভেজা সুপারি ক্রয়-বিক্রি নিয়ে বিরোধের জের ধরে লালমোহন পৌরসভার নয়ানি গ্রামের ব্যবসায়ী ইউসুফ মৃধার নির্দেশে দুর্বৃত্তরা এ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেন জাহাঙ্গীরের বাবা উপজেলার রমাগঞ্জ ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলী আহাম্মদ। তিনি আরও বলেন, দুর্বৃত্তদের নেতৃত্বে ছিলেন ইউসুফ মৃধার ছেলে জীবন মৃধা।

বিজ্ঞাপন

আলী আহাম্মদ আরও বলেন, জাহাঙ্গীরের মাথায় ৯টি সেলাই লেগেছে। তাঁর দুটি পা ও হাত থেঁতলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। তবে ইউসুফ মৃধা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তিনি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী। তাই তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে।

জাহাঙ্গীর আলম উপজেলার কর্তারহাট বাজারের একজন বিকাশ এজেন্ট ও মোবাইল ব্যবসায়ী।

লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকসুদুর রহমান মুরাদ বলেন, এ ধরনের ঘটনার কোনো অভিযোগ তিনি পাননি। পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন