নড়াইলের লোহাগড়ায় ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। আজ রাত নয়টার দিকে নড়াইল সদর হাসপাতালে নেওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়। এর আগে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে দিঘলিয়া চৌরাস্তা এলাকায় তাঁকে কোপানো হয়।
নিহত শেখ জহিরুল ইসলাম ওরফে রেজওয়ান (৩০) দিঘলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি ওই ইউনিয়নের কুমড়ি গ্রামের সাইফুল শেখের ছেলে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁকে কুপিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

শেখ জহিরুল ইসলামের স্বজন, স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্র জানায়, দিঘলিয়াবাজার থেকে ফোনে কথা বলতে বলতে জহিরুল বাড়ি ফিরছিলেন। দিঘলিয়া চৌরাস্তা এলাকায় শিমুল ফকিরের বাড়ির সামনে পৌঁছালে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা তাঁকে উপর্যুপরি কোপায়। সেখান থেকে প্রথমে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে নড়াইল সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে রাত নয়টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

জহিরুলের চাচাতো ভাই কামাল মোল্লা জানান, জহিরুলের দুই হাত, দুই পা, পিঠ ও মাথায় নৃশংসভাবে কোপানো হয়েছে। দুই হাত ও দুই পা প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন তাঁকে কুপিয়েছে বলে তাঁরা ধারণা করছেন।

বিজ্ঞাপন

নড়াইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শেখ ইমরান বলেন, ‘ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে ওই এলাকায় থানা–পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা টহল দিচ্ছেন। আমি ঘটনাস্থালে আছি। সন্ত্রাসীদের ধরার চেষ্টা চলছে।’

মন্তব্য করুন