আদালত পরিচালনার সময় অতিরিক্ত মাত্রায় হর্ন বাজানো এবং নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ন ব্যবহার করায় একটি ট্রাককে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় বেশ কয়েকটি গাড়ির চালককে এ ব্যাপারে সতর্ক করা হয় এবং লিফলেট বিতরণ করা হয়। জনস্বার্থে বিশেষ এ অভিযান চলমান থাকবে বলে জানিয়েছে পরিবেশ অধিদপ্তর।

বিশ্বে শব্দদূষণের শীর্ষে থাকা শহরগুলোর মধ্যে রাজশাহীর অবস্থান চতুর্থ। শব্দের তীব্রতা নিয়ে জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি ইউএনইপির (২০২২) প্রকাশ করা এক বৈশ্বিক প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। ‘ফ্রন্টিয়ারস ২০২২: নয়েজ, ব্লেজেস অ্যান্ড মিসম্যাচেস’ শীর্ষক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঢাকায় শব্দের সর্বোচ্চ তীব্রতা ১১৯ ডেসিবেল। আর রাজশাহী শহরে ১০৩ ডেসিবেল।

সম্প্রতি স্থানীয় একটি সংস্থার পরীক্ষাতেও এ তথ্যের সত্যতা উঠে এসেছে। ওই গবেষণাতেও রাজশাহী শহরজুড়ে অসহনীয় শব্দের তীব্রতা পাওয়া গেছে। এর পর থেকে পরিবেশ অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। এর আগে গত ২৫ এপ্রিল নগরের তালাইমারী এলাকায় আদালত পরিচালনা করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন