default-image

শরীয়তপুরে নতুন করে আরও সাতজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ২০-এ। গতকাল শনিবার রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়।

শরীয়তপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, গতকাল যে সাতজনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে, তাঁদের মধ্যে নড়িয়া উপজেলার ৪ জন, জাজিরা উপজেলার একজন এবং ভেদরগঞ্জ উপজেলার ২ জন। তাঁদের মধ্যে চারজন নারী ও তিনজন পুরুষ। পাঁচজনের বয়স ১৭ থেকে ২৫ বছর এবং দুজনের বয়স ৩৫ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে।

এ নিয়ে নড়িয়ায় ৮ জন, সদরে একই পরিবারের ৩ জন, জাজিরায় ৪ জন, ডামুড্যার একই পরিবারের ৩ জন ও ভেদরগঞ্জে ২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে ৪ এপ্রিল নড়িয়া উপজেলার একজন ঢাকায় কুয়েত মৈত্রী হাসপাতলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিরা সম্প্রতি ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে এসেছেন।

এ পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে ৩৮৪ ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩০০টির ফলাফল পাওয়া গেছে। ২০টি করোনা পজিটিভ এসেছে, বাকি ২৮০টি করোনা নেগেটিভ। করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে ১৫ এপ্রিল থেকে শরীয়তপুরে লকডউন চলছে।

শরীয়তপুরের সিভিল সার্জন আব্দুল্লাহ আল মুরাদ প্রথম আলোকে বলেন, শরীয়তপুরে যত ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তাঁরা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে এসেছেন। শরীয়তপুরে এখন স্থানীয় পর্যায়ে ভাইরাসটির সামাজিক বিস্তার ঘটার ঝুঁকি আছে। এ ঝুঁকি এড়াতে সবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘরে থাকা প্রয়োজন। আগে যারা আক্রান্ত হয়েছেন, এমন রোগীদের দ্বিতীয় দফায় নমুনা সংগ্রহের কাজ শুরু হয়েছে। ফলাফল পাওয়ার পর পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন