বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, নুরুল আমীন শেখের সঙ্গে পাশের শিবচরের মুজাফফরপুর ঢালীকান্দি গ্রামের বাদশা হাওলাদারের মেয়ে রেশমা আক্তারের (২২) বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে নুরুল আমীন তাঁর স্ত্রী রেশমাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করতেন। ২০১৭ সালের ২ জুলাই রেশমাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে পালিয়ে যান নুরুল আমীন।

ঘটনার পরদিন রেশমার ভাই ইয়ার হোসেন বাদী হয়ে নুরুল আমীনকে আসামি করে জাজিরা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ অভিযোগপত্র দিলেও নুরুল আমীনকে আর গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তাঁর অনুপস্থিতিতেই মামলার বিচারিক কার্যক্রম চলতে থাকে।

শরীয়তপুর জজ কোটের পিপি মীর্জা হযরত আলী প্রথম আলোকে বলেন, নুরুল আমীন তাঁর স্ত্রী রেশমা আক্তারকে হত্যা করেছেন, সাক্ষ্যপ্রমাণে এটি প্রমাণিত হয়েছে। তবে পুলিশ এখনো তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। তাই তাঁর অনুপস্থিতিতেই বিচার কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে আসামিকে গ্রেপ্তার করার জন্য আদালত পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। তবে আসামি আত্মসমর্পণ করে উচ্চ আদালতে আপিল করার সুযোগ পাবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন