বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ শুক্রবার সকাল থেকে সেখানে অবস্থান নিয়ে প্রশাসনিক ভবনের ফটকে তালা লাগিয়ে তাঁদের স্লোগান দিতে দেখা গেছে। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের তিন মুখপাত্র নাজমুল হাসান, শামীম হোসেন ও আবু জাফর হোসাইন দুপুরে সাংবাদিকদের জানান, অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার যোগ্য নন। এমন অবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে প্রশাসনের কোনো প্রকার টালবাহানা মেনে নেওয়া হবে না। শুধু সাময়িক বহিষ্কার নয়, তাঁকে স্থায়ীভাবে অপসারণ না করা পর্যন্ত এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের ১৬তম বিশেষ সভায় শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা সিদ্ধান্ত হয়। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে প্রশাসন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, গত রোববার দুপুরের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যয়ন বিভাগের প্রথম বর্ষের রাষ্ট্রবিজ্ঞান পরিচিতি বিষয়ে চূড়ান্ত পরীক্ষা ছিল। তখন ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেন বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিন। এই অপমান সহ্য করতে না পেরে সোমবার রাতে নাজমুল হাসান নামের এক ছাত্র আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন