এই ঘটনায় আব্বাস আলী গুরুতর আহত হন। পরে তাঁকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে ১০০ শয্যাবিশিষ্ট নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যান। কিন্তু হাসপাতালে নেওয়ার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়।

১০০ শয্যাবিশিষ্ট নরসিংদী জেলা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) এ এন এম মিজানুর রহমান বলেন, আব্বাস আলীকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল। প্রাথমিকভাবে বলা যায়, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক মো. মোজাম্মেল হক বলেন, দুর্ঘটনার পরপরই উত্তেজিত হয়ে স্থানীয় লোকজন চালকসহ বাসটি আটকে রাখেন। পরে ওই বাস ও এর চালককে ফাঁড়িতে আনা হয়।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. নূর হায়দার তালুকদার বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় আইনি ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।