বিজ্ঞাপন

শিমুলিয়া ঘাটসূত্রে জানা যায়, করোনা মহামারির কারণে চলাচলে বিধিনিষেধ থাকায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌপথে লঞ্চ, স্পিডবোট ও ট্রলার চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ কারণে যাত্রীদের চাপ বেড়েছে ফেরিগুলোয়। ফেরিতে মানুষের তুলনায় গাড়ির সংখ্যা খুব কম। যাত্রীদের চাপে এই নৌপথে চলাচল করছে ১৭টি ফেরি। ফেরি থেকে নামার পরে তিন থেকে চার গুণ বাড়তি ভাড়া দিয়ে বিভিন্ন যানবাহনে নিজ নিজ গন্তব্যে ছুটছেন যাত্রীরা। এতে উপেক্ষিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধি। একে অপরের গা ঘেঁষাঘেঁষি করে যাতায়াত করায় বাড়ছে করোনার ঝুঁকি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করছে পুলিশ ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

শিমুলিয়া ঘাটের ট্রাফিক পুলিশ পরিদর্শক (টিআই) মো. হিলাল উদ্দিন বলেন, ঘাটে যাত্রীর চাপ সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। এখন ঢাকামুখী যাত্রীদের চাপ বেশি। ঘাটে ১৭টি ফেরি সচল আছে। এগুলো দিয়ে ২৪ ঘণ্টাই অ্যাম্বুলেন্স, ব্যক্তিগত গাড়ি, পণ্যবাহী ট্রাক, পিকআপ ভ্যানসহ যাত্রীদের পারাপার করা হচ্ছে। শিমুলিয়া ঘাটে সকালে ছোট-বড় কিছু গাড়ি জমে ছিল। তবে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক থাকায় গাড়িগুলো দ্রুত পারাপার করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন