default-image

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় কিশোর চাচাতো ভাইয়ের (১৬) বিরুদ্ধে এক শিশুকে (৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শনিবার রাতে শিশুটির বাবা বাদী হয়ে ভেদরগঞ্জ থানায় মামলাটি করেন।

এজাহার ও শিশুটির পরিবার সূত্র জানা যায়, অভিযুক্ত কিশোরটি দশম শ্রেণির ছাত্র। শিশুটি স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে। ১৭ অক্টোবর বিকেলে সে বাড়ির পাশে খেলা করছিল। ওই কিশোর শিশুটিকে পাশের একটি বাগানে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে মুখ বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে সে। বাড়িতে এসে শিশুটি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। স্বজনেরা তাকে উপজেলা সদরের বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করেন। পারিবারিকভাবে ধর্ষণের বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। গতকাল শনিবার রাতে শিশুটির বাবা ভেদরগঞ্জ থানায় মামলা করেন। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে করা ওই মামলায় কিশোরকে একমাত্র আসামি করা হয়েছে। মামলা করার পর থেকে সে আর এলাকায় নেই।

বিজ্ঞাপন

শিশুর বাবা বলেন, ‘ঘটনাটি জানার পর আমি বাকরুদ্ধ হয়ে যাই। মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছি। ভাইবোনের মধুর সম্পর্ক বিষাক্ত হয়ে গেল। মামলা না করার জন্য স্বজনদের চাপে ছিলাম। মামলা করেও এখন চাপে আছি।’

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ওই কিশোরের পরিবারের সদস্যরা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ বি এম রশিদুল বারি বলেন, ধর্ষণের ঘটনাটি এক সপ্তাহ আগে ঘটেছে। অভিযুক্ত কিশোর তাদের আত্মীয় হওয়ায় ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে দেরিতে। পুলিশ জানার সঙ্গে সঙ্গে মামলা নিয়েছে। অভিযুক্ত কিশোরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য পড়ুন 0