default-image

‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীর জব্দ করা মোবাইল ফোনে আপত্তিকর ও অশ্লীল পর্নোগ্রাফি পাওয়া গেছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর পুলিশের উপকমিশনার মোহাম্মদ ইলতুৎমিশ সংবাদ সম্মেলন করে এ কথা জানান।

মোহাম্মদ ইলতুৎমিশ বলেন, রাষ্ট্রবিরোধী উসকানিমূলক বক্তব্য দেওয়া ‘শিশু বক্তা’ রফিকুল ইসলাম মাদানীর মোবাইল ফোনে আপত্তিকর ও অশ্লীল পর্নোগ্রাফি পেয়েছে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। তিনি নিয়মিত এ ধরনের ভিডিও দেখতেন। তিনি রাষ্ট্রবিরোধী বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। তাঁর বিরুদ্ধে করা মামলায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের ধারা যুক্ত করা হয়েছে। জেলহাজতে থাকা রফিকুলের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আজ সকালে গাজীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী উপকমিশনার মোহাম্মদ আহসান, গাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন ও পরিদর্শক (তদন্ত) নন্দলাল প্রমুখ।

এর আগে ৮ এপ্রিল নেত্রকোনায় নিজের বাড়ি থেকে রফিকুল ইসলাম মাদানীকে আটক করা হয়। আটকের পর গাছা থানায় তাঁর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে র‍্যাব। এ সময় তাঁর কাছ থেকে চারটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়। এরপর থেকে তিনি গাজীপুরের জেলহাজতে আছেন। তাঁর বিরুদ্ধে একই আইনে গাজীপুরের বাসন থানায় আরেকটি মামলা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন