বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা জানান, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বেলাব উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের পদ থেকে সমসের জামান ভূঁইয়াকে অপসারণ করে স্থানীয় সরকার বিভাগ। উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান ভূঁইয়া ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শারমিন আক্তারের সম্মানী, ভ্রমণ ও আপ্যায়ন ভাতা বাবদ মোট ৭৪ হাজার ৩৬৬ টাকা ৫টি চেকের মাধ্যমে নিয়মবহির্ভূতভাবে উত্তোলন করে আত্মসাতের অভিযোগ ছিল তাঁর বিরুদ্ধে।

অর্থ আত্মসাতের বিষয়টি ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় তাঁকে উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা হয়। একই সঙ্গে উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ও প্যানেল চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান ভূঁইয়াকে উপজেলা পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আর্থিক ক্ষমতা প্রদান করা হয়।

বেলাব উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনিরুজ্জামান খান বলেন, সমসের জামান ভূঁইয়াকে অব্যাহতি দিয়ে তাঁকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি করার চিঠিটি পেয়েছেন। দলকে সাংগঠনিকভাবে আরও গতিশীল করতে স্থানীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দল পরিচালনা করবেন তিনি।

এ বিষয়ে জানতে সমসের জামান ভূঁইয়ার মুঠোফোনে একাধিকবার কল দিয়েও তাঁর বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি। প্রতিবারই তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে তাঁর কয়েক কর্মী জানান, বিষয়টি নিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছেন সমসের জামান ভূঁইয়া।

জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জি এম তালেব হোসেন বলেন, দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে সমসের জামান ভূঁইয়াকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। দলকে গতিশীল করার জন্যই সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন