default-image

শেরপুরে জমিসংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করতে আগ্নেয়াস্ত্র প্রদর্শনের সময় বাড়ির লোকজনের প্রতিরোধের মুখে আগ্নেয়াস্ত্র ও মোটরসাইকেল ফেলে রেখে পালিয়েছেন তিন ব্যক্তি। পরে পুলিশ ওই আগ্নেয়াস্ত্র ও মোটরসাইকেলটি জব্দ করে। তবে কেউ আটক হয়নি। আজ সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার গাজীরখামার ইউনিয়নের চকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে সদর উপজেলার গাজীরখামার চকপাড়া গ্রামের আন্তাজ আলীর পরিবারের সঙ্গে একই গ্রামের উসমান গনির পরিবারের জমিসংক্রান্ত বিরোধ ও পূর্বশত্রুতা চলছিল। এর জের ধরে আজ বিকেলে উসমান গনি, তাঁর ভাই শহিদুল ইসলাম ও উসমানের ছেলে আকাশ একটি মোটরসাইকেলে করে আন্তাজ আলীর চকপাড়া গ্রামের বাড়িতে গিয়ে রিভলবার প্রদর্শন করেন ও তাঁকে প্রাণনাশের হুমকি দেন। এ সময় আন্তাজ আলীর বাড়ির লোকজন তাঁদের প্রতিরোধ করেন। একপর্যায়ে এলাকাবাসীর সহায়তায় আন্তাজ আলীর লোকজন উসমান গনি, শহিদুল ও আকাশকে আটকের চেষ্টা করলে তাঁরা রিভলবার ও তাঁদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি ফেলে রেখে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রক্রিয়া ও জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে। সেই সঙ্গে পুলিশ ঘটনাটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছে।
মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল)

খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন, উপপরিদর্শক মো. সুজাউদৌলাসহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে রিভলবার ও মোটরসাইকেলটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসেন। তবে এ ঘটনায় পালিয়ে যাওয়া তিনজনের কেউ আটক হননি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোহাম্মদ হান্নান মিয়া রাতে প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় সদর থানায় মামলার প্রক্রিয়া ও জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে। সেই সঙ্গে পুলিশ ঘটনাটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন