default-image

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় শিশু ধর্ষণ (১০) মামলার প্রধান আসামি হারুন মণ্ডলকে (৪০) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারিন ফারজানা পুলিশের করা সাত দিনের রিমান্ড আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হারুনের বাড়িতে শিশুটি গৃহপরিচারিকার কাজ করত। ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত বুধবার হারুনসহ আটজনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। ওই দিনই পুলিশ হারুনসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে। প্রধান আসামি হারুনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গত বৃহস্পতিবার আদালতে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। রোববার শুনানি শেষে হারুনের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। এর আগে বৃহস্পতিবার শিশুটিকে গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে সেফহোমে পাঠানোর আবেদন করা হলে আদালত তা মঞ্জুর করেন।

অপরদিকে ঘটনার আলামত নষ্টের চেষ্টা ও ভুক্তভোগীকে সরিয়ে রাখার অভিযোগে গ্রেপ্তার হওয়া জাহিদুল ইসলাম, সাবেক ইউপি সদস্য তাজুল ইসলাম, সিরাজুল ইসলাম ও হাসমত আলী বর্তমানে কারাগারে আছেন। মামলার বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি–তদন্ত) জোবায়ের আহমেদ বলেন, আদালত রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন। এ সপ্তাহের যেকোনো সময় প্রধান আসামিকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0