বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শেরপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক জাবেদ হোসেন মুহাম্মদ তারেক প্রথম আলোকে বলেন, সিগারেটের ফেলে দেওয়া অবশিষ্টাংশ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। দ্রুত আগুন নেভানোর ফলে কোনো ক্ষতি হয়নি।

জেলা সিভিল সার্জন ও হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক এ কে এম আনওয়ারুর রউফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, হাসপাতালে আসা রোগীর স্বজনদের অসচেতনতার কারণে আগুনের এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন