default-image

নির্বাচনী প্রচারের সময় সহিংসতায় একজন নিহত ও পরে কাউন্সিলর প্রার্থীর লাশ উদ্ধারের ঘটনায় ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর পদে ভোট স্থগিত করেছে প্রশাসন। আজ বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জুয়েল আহম্মেদ এই তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে গতকাল বুধবার রাত ৮টার দিকে শৈলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কবিরপুর এলাকায় নির্বাচনী প্রচার চালানোর সময় প্রতিপক্ষের এক কাউন্সিল প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় নিহত হয়েছেন উমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত ইসলাম ওরফে বল্টু। তিনি অপর কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত আলীর ভাই। এই ঘটনার ৫ ঘণ্টা পর রাত একটার দিকে শৈলকুপা উপজেলার দেবতলা-বাড়ইপাড়া এলাকার কুমার নদ থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর খান ওরফে বাবুর লাশ উদ্ধার করা হয়। আলমগীর খান শৈলকুপা পৌরসভা এলাকার কবিরপুর গ্রামের জালাল আহম্মেদ খানের পুত্র ও শৈলকুপা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ছিলেন। তাঁর প্রতীক ছিল পাঞ্জাবি।

বিজ্ঞাপন

দেবতলা-বাড়ইপাড়া এলাকার বাসিন্দা জয়নাল আলী বলেন, রাতে কুমার নদে দুজনকে সাঁতরে পার হতে দেখেছেন। কিছুক্ষণ পর লোকজনকে চিৎকার করতে শোনা যায়। পরে নদের পানিতে একজনের লাশ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে শৈলকুপা থানা-পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে।

আজ বৃহস্পতিবার কাউন্সিলর প্রার্থী আলমগীর খানের স্ত্রী বলেন, তাঁর স্বামী ৮ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থী ছিলেন। তাঁর যথেষ্ট জনপ্রিয়তাও ছিল। রাতে তাঁর স্বামীকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি এই ঘটনার বিচার চান।

বেলা ২টার দিকে সহকারী পুলিশ সুপার (শৈলকুপা সার্কেল) মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত কোনো ঘটনায় মামলা হয়নি। শহরের মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে আছে।

মন্তব্য করুন