বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত বুধবার বিকেলে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কামাল উদ্দিন ওরফে বাবলুর পক্ষে স্থানীয় চর মটুয়া কলেজের সামনে থেকে একটি মোটর শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে সন্ধ্যায় স্থানীয় মনারখিল এলাকায় একটি নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়। পরে ফেরার পথে রাত আটটার দিকে মনারখিল এলাকার পীর মোছলেহ উদ্দিনের মাজার নামের স্থানে সড়কের মোড় ঘোরানোর সময় হঠাৎ পিকআপ ভ্যানের পাশের একটি ডালা খুলে চারজন সড়কে ছিটকে পড়ে। এর মধ্যে মেহরাজ উদ্দিন ওরফে রাফি (১২) ও নাঈমুল ইসলাম ওরফে সংগ্রাম (১১) পিকআপ ভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা যায়।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাহেদ উদ্দিন শুক্রবার বিকেলে বলেন, একটি শোভাযাত্রার পিকআপ ভ্যান থেকে ছিটকে পড়ে দুই স্কুলছাত্রের নিহত হওয়ার ঘটনার পর থানা-পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। নিহত শিশুদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে। কিন্তু তারা শিশুদের লাশের ময়নাতদন্ত করতে কিংবা এ ঘটনায় থানায় মামলা করতে রাজি হয়নি। পরে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়েছে।

ওসি মোহাম্মদ সাহেদ উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, তিনি বর্তমানে (শুক্রবার বিকেলে) চর মটুয়া এলাকায় নির্বাচনী আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক মতবিনিময় সভা করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ রয়েছেন। সেখানকার সভায় তিনি নির্বাচনী প্রচারকাজে শিশুদের ব্যবহার না করার বিষয়ে সব প্রার্থীকে সতর্ক করবেন।

জেলা জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ রবিউল আলম বলেন, আচরণবিধি ভঙ্গ করে নির্বাচনী মোটর শোভাযাত্রার পিকআপ ভ্যান থেকে ছিটকে পড়ে দুই শিশুর মৃত্যুর ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালনে তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন