শ্বাসকষ্ট নিয়ে বৃদ্ধার মৃত্যু, চার স্বজন আগেই করোনা 'পজিটিভ'

বিজ্ঞাপন
default-image

ছেলে, ছেলের বউ, এক ভাতিজা ও নাতির শরীরে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে আগেই। এবার করোনার উপসর্গ নিয়ে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মারা গেলেন ওই পরিবারের বৃদ্ধা (৮০)।

নাটোর শহরের কাফুরিয়াপট্টি মহল্লার এই বাসিন্দার নাম ছবি রানী রায়। অবশ্য এই অশীতিপর বৃদ্ধার আগে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। সেই প্রতিবেদনে করোনা ‘নেগেটিভ’ এসেছিল। তবু বাড়তি সতর্কতা হিসেবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাশের সৎকার করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, শহরের কাফুরিয়াপট্টি মহল্লার ছবি রানী রায় (৮০) নামের এক বৃদ্ধ আজ বেলা একটার দিকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। কয়েক দিন ধরে তিনি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। এর আগে দীর্ঘদিন ধরে তাঁর ডায়াবেটিস ছিল।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহাঙ্গীর আলম জানান, আগে থেকেই ওই বৃদ্ধার ছেলে, ছেলের বউ, এক ভাতিজা ও নাতি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত। বাড়িটি দুই সপ্তাহ আগেই লকডাউন করা হয়েছিল। তবে পরিবারের সদস্যরা লকডাউনের রীতিনীতি মেনে চলেন না বলে অভিযোগ রয়েছে।

তবে অভিযোগ সঠিক নয় বলে দাবি করেছেন মারা যাওয়া ছবি রানী রায়ের ছেলে তন্ময় রায়। তিনি বলেন, তাঁর মায়ের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। তাতে করোনা ‘নেগেটিভ’ এসেছিল। বাড়ির সবাই স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন বলে দাবি করেন তিনি।

খবর পেয়ে রাজশাহী থেকে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের সদস্যরা ঘটনাস্থলে আসেন। তাঁরা স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে লাশের সৎকার করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন