default-image

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় নির্মাণাধীন ভবনের মাটি কাটতে গিয়ে চাপা পড়ে দুই নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুর দুইটার দিকে উপজেলার হাঁসাড়া কালিখোলা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন একজন।

নিহত দুজন হলেন শচীন মণ্ডল (৩২) ও মো. রুবেল (৩২)।

নিহত শচীন মণ্ডল বীরতারা ইউনিয়নের সাতগাঁও গ্রামের দিলীপ মণ্ডলের ছেলে। রুবেল মধ্য হাঁসাড়া গ্রামের রেজাউল মাঝির ছেলে। এ ঘটনায় গুরুতর আহত জিল্লু শেখকে (৫০) রাজধানীর মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজন জানায়, কালিখোলা এলাকার ইতালিপ্রবাসী আফজাল শেখের বাড়িতে বহুতল বাড়ি নির্মাণের কাজ চলছিল। বাড়িটির নির্মাণকাজ ইউনিয়ন পরিষদে যাওয়ার রাস্তা ঘেঁষে চলছিল। দুপুরে ভবনের ভিত্তি তৈরির জন্য মাটি খুঁড়ে বড় গর্ত করা হয়। ওপরে রাস্তা ঠিক রেখে একেবারে তার নিচেই খোঁড়াখুঁড়ির কাজটি করা হয়। দুপুর দুইটার দিকে রাস্তাটি ভেঙে গর্তের ভেতর থাকা নির্মাণ শ্রমিক শচীন মণ্ডল, রুবেল ও জিল্লু শেখের ওপর পড়ে। এতে মাটিচাপা পড়ে শচীন মণ্ডল ও রুবেল ঘটনাস্থলেই মারা যান। জিল্লু শেখকে উদ্ধার করে ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ঘটনার পর ওই এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে এবং স্থানীয় লোকজন আফজাল শেখের বাড়ি ঘেরাও করে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। আফজাল শেখকে পুলিশ তাদের হেফাজতে নেয়।

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, গত বছরও আফজাল শেখ রাস্তা খুঁড়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে কাজ শুরু করেছিলেন। সেটা স্থানীয় লোকজনের তীব্র বাধার মুখে প্রতিহত হয়।

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়া প্রথম আলোকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ জানতে পেরে ঘটনাস্থলে যায়। লাশ দুটি উদ্ধার করা হয়েছে। বাড়ির মালিককে আটক করা হয়েছে। মালিকের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন। এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন