নিহত ব্যক্তির পরিবার জানায়, আনোয়ার হোসেন প্রতিদিন রাতে তাঁর ইজিবাইকটি জৈনাবাজার-বাঁশবাড়ি সড়কের পাশের একটি টিনের দোকানে রাখতেন। ইজিবাইকের নিরাপত্তার জন্য তিনি নিজেও ওই দোকানের ভেতর থাকতেন। গতকাল রাতে আনোয়ার ইজিবাইকটি রেখে সেখানেই ঘুমিয়ে পড়েন।

আজ ভোরে সাহ্‌রির পর স্থানীয় এক নারী দোকানটি খোলা দেখতে পান। দোকানের কাছে গিয়ে তিনি দেখেন ঘরের ভেতর আনোয়ারের লাশ পড়ে আছে। পরে ওই নারী বিষয়টি আশপাশের লোকজনকে জানালে সবাই ঘটনাস্থলে এসে দোকানের সিঁধ কাটা দেখতে পান। খবর পেয়ে সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে গাজীপুরের সহকারী পুলিশ সুপার (কালিয়াকৈর সার্কেল) আজমীর হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ওই ব্যক্তিকে শ্বাসরোধে হত্যা করে ইজিবাইকটি চুরি করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় মামলা হবে। সুরতহাল শেষে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন