default-image

গাজীপুরের শ্রীপুরে বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১ হাজার ৮০০ অবৈধ গ্যাস–সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। এ সময় জরিমানা করা হয়েছে ৩৭ হাজার টাকা। আজ বৃহস্পতিবার রাত আটটা পর্যন্ত এ অভিযান চলে। তিতাস গ্যাস গাজীপুর অফিসের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন গাজীপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশিক-উর-রহমান।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, অভিযানে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ফায়ার সার্ভিস, ফুলবাড়িয়া ও কাওরান বাজার এলাকায় ১১টি স্পটে অবৈধভাবে স্থাপিত পাইপলাইন অপসারণ করা হয়। ফলে প্রায় ৯০০টি বাড়ির আনুমানিক ১ হাজার ৮০০ অবৈধ চুলার গ্যাস–সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়। একই দিন উপজেলার কাওরান বাজার এলাকায় বাসাবাড়িতে অবৈধ গ্যাস ব্যবহারের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই গ্রামের সোনিয়া আক্তারকে ১৫ হাজার টাকা, তারিকুল ইসলামকে ২০ হাজার টাকা এবং রুবেল সরকারকে ২ হাজার টাকাসহ মোট ৩৭ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন।

যাঁরা অবৈধ গ্যাস–সংযোগ নিয়েছেন এবং যাঁরা গ্রামের সাধারণ মানুষকে গ্যাস–সংযোগের প্রলোভন দেখিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত ভয়াবহ গ্যাস দুর্ঘটনার দিকে ঠেলে দিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, যাঁরা অবৈধভাবে গ্যাস–সংযোগ গ্রহণ করেছেন এবং যাঁরা গ্রামের সাধারণ মানুষকে গ্যাস–সংযোগের প্রলোভন দেখিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত ভয়াবহ গ্যাস দুর্ঘটনার দিকে ঠেলে দিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এখন থেকে গাজীপুর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় নিয়মিতভাবে অবৈধ গ্যাস–সংযোগ উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

অভিযানে তিতাস গ্যাসের ভালুকা জোনাল বিপণন অফিসের ব্যবস্থাপক মো. দেলোয়ার হোসেন ছাড়াও এস এম আবু সুফিয়ান, মির্জা শাহনেওয়াজ লতিফ, মো. জুয়েল রানা প্রমুখ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অভিযানে সহযোগিতা করেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন