default-image

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে আবার টিলা কেটে রিসোর্ট তৈরির কাজ চলছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার রাধানগর এলাকায় তাওসী গার্ডেন রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে টিলা কাটার এই অভিযোগ।

গতকাল মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তার ঠিক পাশে নবনির্মিত রিসোর্টটির পেছনের অংশে বড় টিলা রয়েছে। কয়েকজন শ্রমিক সেই টিলা কেটে সমান করছেন। টিলাটির নিচের অংশ এমনভাবে কাটা হয়েছে যে বৃষ্টি হলে ওপর থেকে টিলাটি ধসে পড়ার ঝুঁকি আছে। টিলার কাটা অংশে আলগাভাবে ঘাস লাগিয়ে রাখা হয়েছে। মাটি কাটার শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সপ্তাহখানেক ধরে তাঁরা এই টিলা কাটার কাজটি করছেন।

এই জায়গার মালিক শুভাষ পাল বলেন, ‘টিলাটি আগেই কাটা ছিল। এখন আমরা সামান্য জায়গা কেটে সমান করেছি। এখানে রিসোর্টের কয়েকটি ঘর এবং একটি সুইমিংপুল হবে। আমরা টিলার বেশি জায়গা কাটিনি। যে জায়গা কাটা হয়েছে, সেখানে ঘাস লাগানো হবে।’

বিজ্ঞাপন

রিসোর্টের স্বত্বাধিকারী হিসেবে পরিচয় দেওয়া নুরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘পর্যটকদের জন্য আমরা রিসোর্টটি তৈরি করছি। এখানে আমরা কোন টিলা কাটিনি।’

default-image

এ বিষয়ে পাহাড় রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, শ্রীমঙ্গলে টিলা কেটে রিসোর্ট কিংবা ঘরবাড়ি বানানো এটাই প্রথম নয়। বারবার প্রশাসনকে বিষয়টি নিয়ে চিঠি ও তথ্য–প্রমাণ দেওয়া হয়। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে দৃষ্টান্তমূলক কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয় না বলে তাঁর অভিযোগ। তিনি বলেন, প্রশাসন যদি দৃষ্টান্তমূলক কোনো ব্যবস্থা নিত, তাহলে মানুষ টিলা বা পাহাড় কাটার সাহস পেত না।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজট্রেট নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, পাহাড় বা টিলা কাটা আইনত দণ্ডণীয় অপরাধ। শিগগিরই সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন