সখীপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে  সারা দেশের দুই শতাধিক রানারের অংশগ্রহণে ম্যারাথন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। আজ বুধবার ভোর সাড়ে ছয়টার দিকে
সখীপুরে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে সারা দেশের দুই শতাধিক রানারের অংশগ্রহণে ম্যারাথন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। আজ বুধবার ভোর সাড়ে ছয়টার দিকেপ্রথম আলো

টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলা শহর থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে প্রত্যন্ত তৈলধারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ। আজ বুধবার কাকডাকা ভোরে ওই মাঠে উপস্থিত হন সারা দেশ থেকে নিবন্ধন করা দুই শতাধিক রানার। এর মধ্যে ৪৫ জন নারী সদস্যও রয়েছেন। প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার আগে তাঁরা ওই মাঠে শারীরিক কসরত করেন। হাফ ম্যারাথনে (২১ কিলোমিটার) শতাধিক দৌড়বিদ ও মিনি ম্যারাথনে (১০ কিলোমিটার) আরও শতাধিক দৌড়বিদ অংশ নেন। সকাল সাড়ে ছয়টায় প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রাজধানী ঢাকার বিডি রানার গ্রুপের সহযোগিতায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য-গবেষণাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ও ডেসকোর পরিচালনা বোর্ডের সদস্য প্রকৌশলী আতাউল মাহমুদের উদ্যোগে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এর আগে ১২ মার্চ টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে ম্যারাথন প্রতিযোগিতা বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেন আতাউল মাহমুদ।

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে রাজধানী ঢাকার বিডি রানার গ্রুপের সহযোগিতায় এ প্রতিযোগিতায় সারা দেশ থেকে নিবন্ধন করা দুই শতাধিক রানার অংশ নেন।

বিডি রানার গ্রুপ সূত্র জানায়, এক মাস আগে থেকে ম্যারাথন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের নিবন্ধন শুরু হয়। সারা দেশ থেকে তিন শতাধিক দৌড়বিদ নিবন্ধন করলেও আজ ভোর ছয়টায় দুই শতাধিক দৌড়বিদ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। হাফ ম্যারাথন প্রতিযোগিতা উপজেলার তৈলধারা থেকে শুরু হয়ে ইন্দারজানি-চাটারপাড়া, ইন্দারজানি-গড়বাড়ি, তৈলধারা-মহানন্দনপুর মহিলা কলেজ সড়ক হয়ে উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয় এবং মিনি ম্যারাথন ওই একই স্থান থেকে শুরু হয়ে তৈলধারা-মহানন্দনপুর, মহিলা কলেজ সড়ক হয়ে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। বিডি রানার গ্রুপের শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক, চিকিৎসক দল, অ্যাম্বুলেন্স প্রতিযোগীদের সেবায় নিয়োজিত ছিল।

বিজ্ঞাপন

সকাল সাড়ে ছয়টায় আতাউল মাহমুদ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম কিবরিয়া, কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

default-image

সকাল ১০টায় প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সাবেক ভূমি সচিব ইয়াকুব আলী পাটোয়ারী। উপজেলা পরিষদ মাঠে আয়োজিত পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) চিত্রা শিকারী। এ সময় আতাউল মাহমুদ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর একান্ত সচিব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান, সরকারি সাদত কলেজের অধ্যক্ষ আলীম মাহমুদ, ডেটা সফটের প্রেসিডেন্ট ইয়োগো চন্দ্রিমার প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী মনজুর মোর্শেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কুতুব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শওকত শিকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

হাফ ম্যারাথন (২১ কিলোমিটার) প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন আলামিন হোসাইন। তিনি ১ ঘণ্টা ৩৭ মিনিটে নির্ধারিত স্থানে পৌঁছে যান। দ্বিতীয় হন মন ও তৃতীয় হন মেহেদী হাসান। মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেন নার্গিস জাহান (২ ঘণ্টা ৬ মিনিট)। দ্বিতীয় হন ফারহানা লিজা ও তৃতীয় হন সাদিয়া মনা।

default-image

মিনি ম্যারাথন (১০ কিলোমিটার) প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করেন ইমরান হাসান (৩৭ মিনিট)। দ্বিতীয় হন আল মেরাজ ও তৃতীয় হন আবদুল্লাহ আল মামুন। মেয়েদের মধ্যে প্রথম হন মেহের আফফান, দ্বিতীয় হন আসমা আক্তার ও তৃতীয় হন নুসরাত আফরিন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন