বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউল হক প্রথম আলোকে জানান, দায়িত্ব মাত্র দুই মাসের হলেও উপনির্বাচনে প্রচার-প্রচারণা, প্রতিদ্বন্দ্বিতা ও ভোটের লড়াইয়ের কোনো কমতি ছিল না। তিনজন প্রার্থী ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।

গতকাল উপজেলার গজারিয়া শান্তিকুঞ্জ একাডেমি বিদ্যালয়ে সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত টানা ভোট গ্রহণ চলে। ওই ওয়ার্ডের মোট ১ হাজার ৪২৮ ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ৩৪টি ভোট পড়েছে, এর মধ্যে ১০টি ভোট বাতিল হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চিত্রা শিকারী প্রথম আলোকে বলেন, মাত্র একটি ওয়ার্ডে নির্বাচন হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিল। সবার সহযোগিতায় উপনির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন