বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সমাবেশে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আমীর আলী চৌধুরী বলেন, ‘শিক্ষকতা সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা। একজন সত্যিকারের শিক্ষকই বদলে দিতে পারেন সবকিছু। শ্রেণিকক্ষে শিক্ষকের পাঠদানের বৈচিত্র্যতা, উচ্চারণ ও উপস্থাপনা শিক্ষার্থীদের জন্য অনুপ্রেরণা জোগায়। তাই শিক্ষকতার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মননশীলতার মধ্যে গড়ে তোলার পথ বাতলে দিতে হবে। তবেই ওই শিক্ষককে সবাই মনে রাখবে।’

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি চিকিত্সক মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘পরিণত বয়স পেরিয়ে বার্ধক্যে এসে প্রিয় শিক্ষককে আরেকবার স্মরণ করার ক্ষেত্র তৈরি করে দিয়েছে প্রথম আলো। প্রথম আলোর অনেক সামাজিক কর্মযজ্ঞের মধ্যে এটিও আরেকটি দৃষ্টান্ত।’

২০২০ সালে কুমিল্লা থেকে প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা পেয়েছিলেন কুমিল্লা মডার্ন প্রাইমারি স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন। তিনি বলেন, ‘শিক্ষককে সম্মান দেওয়া পবিত্র কাজ। সত্যিকারের ছাত্ররাই আমাদের টেনে নিয়ে যাচ্ছেন। এরাই আমার বাংলাদেশ।’

আরও বক্তব্য দেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ আবু জাফর খান, কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মো. জামাল নাছের, কুমিল্লা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. বাহাদুর হোসেন, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোকসানা ফেরদৌস মজুমদার, কুমিল্লা জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক রাশেদা আক্তার, কুমিল্লা কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ এম নারগিস আক্তার, বুড়িচং উপজেলার সোনারবাংলা কলেজের অধ্যক্ষ সেলিম রেজা সৌরভ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক চৌধুরী শাহরিয়ার মোজাম্মেল, নারীনেত্রী দিলনাশি মোহসেন, সাংস্কৃতিক সংগঠন তিন নদী পরিষদের সভাপতি আবুল হাসানাত, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) কুমিল্লার সভাপতি শাহ মো. আলমগীর খান, সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) কুমিল্লার সাবেক সভাপতি বদরুল হুদা, ইতিহাসবিদ আহসানুল কবীর, কালিকাপুর আবদুল মতিন খসরু সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. মফিজুল ইসলাম, কুমিল্লা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক রীতা চক্রবর্তী, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী অর্পিতা দস্তিদার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রিয় শিক্ষক সম্মাননার প্রেক্ষাপট তুলে ধরে প্রথম আলো যুব কার্যক্রম ও অনুষ্ঠান বিভাগের প্রধান মুনির হাসান বলেন, তিন বছর ধরে আইপিডিসি-প্রথম আলো প্রিয় শিক্ষক সম্মাননা দিয়ে আসছে। ৪০ বছরের ঊর্ধ্বে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছয়জন শিক্ষককে ওই সম্মাননা দেওয়া হয়। এখন চলছে মনোনয়ন দেওয়ার কাজ। সারা দেশের যে কেউ এই মনোনয়নের জন্য নাম প্রস্তাব পাঠাতে পারবেন। প্রিয় শিক্ষক সম্মাননাসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে এই www. priyoshikkhok.com ওয়েব ঠিকানায়।

স্বাগত বক্তব্য দেন প্রথম আলোর কুমিল্লার নিজস্ব প্রতিবেদক গাজীউল হক। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন কুমিল্লা বন্ধুসভার সভাপতি মাহমুদা আক্তার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করে কুমিল্লা বন্ধুসভার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারজানা নিশাত।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতার ফাঁকে ফাঁকে আইপিডিসি-প্রথম আলোর তৈরি জার্নি, মজুমদার ও আকতার স্যার শিরোনামের তিনটি ভিডিও প্রদর্শন করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন