শিক্ষার্থীদের একাংশের অভিযোগ, শুক্রবার সন্ধ্যায় শিক্ষার্থীদের একটি পক্ষ সন্ধানীর নতুন কমিটি ঘোষণা করে। ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখ্যান করে ২৭তম ব্যাচের সাব্বির হোসেন ওরফে শোভন, জহিরুল ইসলাম ও ২৬তম ব্যাচের মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে শিক্ষার্থীদের একটি দল একই দিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে কলেজের একমাত্র ছাত্রাবাসের ২০৮, ৩০৩ ও ৪০২ নম্বর কক্ষে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। রাতেই তারা সন্ধানীর পাল্টা কমিটির ঘোষণা দেয়। এতে সভাপতি পদে আনোয়ারুল আজিমের নাম অপরিবর্তিত থাকলেও মূয়িত উল হককে সাধারণ সম্পাদক, কে এম আরিফকে সাংগঠনিক সম্পাদক ও মেহেদী হাসান ওরফে হৃদয়কে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি করে পাল্টা কমিটির ঘোষণা দেওয়া হয়।

স্বাক্ষর জালিয়াতি করে পাল্টা কমিটি ঘোষণা এবং কক্ষে হামলার অভিযোগ তুলে সন্ধানী বিলুপ্ত কমিটির সহসভাপতি আবদুল্লাহ আল ফারাবী শনিবার বগুড়া সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

৪০২ নম্বর কক্ষের বাসিন্দা ও ২৮তম ব্যাচের শিক্ষার্থী শুভ খন্দকার প্রথম আলোকে বলেন, হামলার সময় তিনি কক্ষে ছিলেন না। রাতের খাবার খেতে এ সময় বাইরে অবস্থান করছিলেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে কক্ষে ফিরে দেখেন টেবিল-চেয়ার, টেলিস্কোপ, স্ট্যান্ড ফ্যান, পানির ফিল্টার, মেডিকেল সরঞ্জামাদি ভাঙচুর করা হয়েছে। তছনছ করা হয়েছে গোটা কক্ষ।

বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি ফোরকানুর রহমান বলেন, গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, সন্ধানীর বিলুপ্ত কমিটির শীর্ষ ছয় পদে থাকা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সুপারিশ মোতাবেক পরবর্তী কমিটি ঘোষণা হওয়ার কথা। সেই অনুযায়ী, শুক্রবার সন্ধ্যায় নতুন কমিটির ঘোষণা দেন তাঁরা। কিন্তু রাতেই তাঁদের স্বাক্ষর জাল করে পাল্টা কমিটির ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। ওই কমিটির সঙ্গে তাঁদের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই।

আগের কমিটির সহসভাপতি আবদুল্লাহ আল ফারাবী বলেন, স্বাক্ষর জাল ও কক্ষে হামলার ঘটনায় থানায় অভিযোগ দাখিলের পর পুলিশ ও কলেজ প্রশাসন তদন্ত শুরু করেছে।

হামলার অভিযোগের বিষয়ে ২৬তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান বলেন, ‘হামলার অভিযোগ সঠিক নয়। অযাচিতভাবে আমার ওপর দোষ চাপানো হচ্ছে।’

২৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাব্বির হোসেন বলেন, ‘কলেজের সব কার্যক্রমে সক্রিয় থাকলেও আমাদের বাদ দিয়ে সন্ধানীর একপেশে কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি প্রত্যাখ্যান করে আমরা পাল্টা কমিটি গঠন করেছি। কারও স্বাক্ষর জাল করা হয়নি। উল্টো তাঁরা আমাদের ফাঁসাতে নিজেদের কক্ষ নিজেরা ভাঙচুর করে আমাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। আমরাও তাঁদের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করেছি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন