default-image

পুলিশ কর্মকর্তারা কে কখন থানায় আসছেন। পুলিশের কাছে আসা মানুষগুলো যথাযথ সেবা পাচ্ছে কি না? এখন থেকে সবকিছুই মনিটরিং করবে এসপির চোখ। তথ্যপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে হবিগঞ্জের ৯টি থানার কার্যক্রম সিসি ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। এখন থেকে তদারক করবেন হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ উল্ল্যা। তাই এ কার্যক্রমের নাম দেওয়া হয়েছে এসপির চোখ।
আজ সোমবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন এসপি মোহাম্মদ উল্ল্যা।
এসপির চোখ কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষে সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ডাকা হয় এক সংবাদ সম্মেলন। সম্মেলনে জানানো হয়, পুলিশের কার্যক্রমে গতি ও আরও স্বচ্ছতা আনতে জেলার নয়টি থানাকে সরাসরি সিসি ক্যামেরার নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। থানার ভেতরে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা কে কী করছেন, তা এক জায়গা থেকে নিয়ন্ত্রণ বা তদারক করবেন পুলিশ সুপার (এসপি)।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা বলেন, কোনো কোনো থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বা অন্যরা যথাসময়ে অফিসে আসেন না। এলেও অনেক সময় থানায় আগত লোকজনকে সঠিকভাবে সেবা দিচ্ছেন না। এমন নানা অভিযোগ ছিল। এসব অভিযোগ দূর করতে এবং থানাগুলোর কাজের গতি বাড়াতে প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে হবিগঞ্জের নয়টি থানার সিসি ক্যামেরার সাহায্যে এক জায়গা থেকে নিয়ন্ত্রণ করবেন তিনি। যে কারণে এ কার্যক্রমের নাম দেওয়া হয়েছে এসপির চোখ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0