বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রংপুরের সবচেয়ে বড় সিটি বাজারে শীতের আগাম সবজি উঠতে শুরু করেছে। এসব পণ্যের মধ্যে প্রতি কেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৫০ টাকায়। পাতাকপি ৬০, মুলা ৫০, ধনেপাতা ৪০০ টাকা কেজিতে ও লাউ প্রতিটি ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এ ছাড়া প্রতি কেজি পটোল, করলা, ঝিঙে ৪০, পেঁপে ৩০, বরবটি, কচুর লতি ৫০, বেগুন ৪০ ও কাঁচা মরিচ ৮০ টাকায় কিনতে হচ্ছে ক্রেতাদের। বিক্রেতারা জানিয়েছেন, এক সপ্তাহ আগে এসব সবজি গড়ে ১০ টাকা কম দামে বিক্রি হয়েছে।

দাম বাড়ার বিষয়ে বিক্রেতাদের দাবি, বাজারে এখনো পুরোদমে শীতকালীন সবজির সরবরাহ শুরু হয়নি। কিন্তু ক্রেতাদের চাহিদা বেশি। এ কারণে বেশি দামে সবজি বিক্রি হচ্ছে।

গতকাল সিটি বাজারে জুম্মাপাড়ার বাসিন্দা মাসুম হোসেন বলেন, শীতের সবজি উঠলেও হাত দেওয়া যায় না। সবজি কিনতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। দাম বেশি থাকায় সবজি অল্প পরিমাণে কিনতে হচ্ছে।

শীতের সবজি উঠলেও হাত দেওয়া যায় না। কিনতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। দাম বেশি থাকায় সবজি অল্প পরিমাণে কিনতে হচ্ছে।
মাসুম হোসেন, রংপুর নগরের জুম্মাপাড়ার বাসিন্দা

এদিকে ব্রয়লার মুরগি ১৫০ টাকা কেজি, পাকিস্তানি ২৫০, সোনালিকা মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকায়। কয়েকজন ক্রেতা জানান, কয়েক দিন আগেও তাঁরা ব্রয়লার মুরগি ১২০ টাকায় কিনেছেন। এখন ৩০ টাকা বেড়ে গেছে।

বর্তমানে বাজারে ১ হাজার টাকা কেজির নিচে কোনো ইলিশ মিলছে না। তবে ছোট ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকায়।

রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেন, বাজারে শীতের সবজি এখন সবেমাত্র আসতে শুরু করেছে। চাহিদা অনুযায়ী শীতের আগাম সবজির দাম একটু বেশি থাকে। তবে অল্প কয়েক দিনের মধ্যে তা নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন