বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামে অক্টোবরের পর এক দিনে এত করোনা রোগী আর শনাক্ত হয়নি। ইতিমধ্যে আক্রান্তের হার ও সংখ্যা বেশ কমে এসেছিল। একপর্যায়ে শনাক্ত ‘সিঙ্গেল ডিজিটে’ চলে আসে। শূন্য থেকে ৯ জনের মধ্যে ওঠা–নামা করে দীর্ঘদিন। ১ শতাংশের নিচে নেমে এসেছিল শনাক্তের হারও। গত চার–পাঁচ দিন ধরে শনাক্ত আস্তে আস্তে বাড়তে শুরু করেছে। গতকাল রোববার শনাক্ত হন ১৬ জন ও গত শুক্রবার ১৮ জন।

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, ‘করোনা আবার চোখ রাঙাচ্ছে। অমিক্রন দরজায় কড়া নাড়ছে। ঢাকায় শনাক্ত হয়েছে। আমাদের এখানে শনাক্ত হতে সময় লাগবে না। অমিক্রন মোকাবিলায় আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। এ জন্য মাস্ক পরার পাশাপাশি ভিড় এড়িয়ে চলা খুব দরকার। সামাজিক অনুষ্ঠানও পরিহার করা উচিত।’

বর্তমানে চট্টগ্রামে হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি নেই বললেই চলে। করোনার জন্য বিশেষায়িত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে করোনায় আক্রান্ত হয়ে গতকাল পর্যন্ত মাত্র দুজন ভর্তি ছিলেন।

এই হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মোহাম্মদ আবদুর রব প্রথম আলোকে বলেন, ‘আগামী সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যেই করোনা সংক্রমণ বাড়ার ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে। অমিক্রন হানা দেওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি। অমিক্রন খুব বেশি সংক্রামক। তবে হাসপাতালে হয়তো সবার আসতে হবে না। কিন্তু বৃদ্ধ ও আগে থেকেই অন্যান্য রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের হাসপাতালে আসা লাগতে পারে। সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন