default-image

কুষ্টিয়ার মিরপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এনামুল হক এবার প্রকাশ্যে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। গত শনিবার সন্ধ্যায় ৪ নম্বর ওয়ার্ডে এক নির্বাচনী পথসভায়  তিনি তাঁর কর্মী-সমর্থক এবং ভোটারদের এভাবে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। বুধবার এই বক্তব্যর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।  

ওই ভিডিও ক্লিপে দেখা যায়, আওয়ামী লীগের প্রার্থী এনামুল হক বলছেন, ‘ভোট দিতে হবে। ভয়ের কোনো ব্যাপার না, কে দিচ্ছে এটা কোনো ব্যাপার না। আমি যদি ওপেন সিল মেরে দিই, তাহলে কেউ কারও কিছু দেখার নাই। সবাই নৌকায় সিল মেরে নেন, কোনো সমস্যা নাই। যেখানে সবাই একতরফা ভোট দেবে, সেখানে কেন আপনি সন্দেহের মধ্যে থাকবেন। আমাকে কেন সবাই সন্দেহ করবে। ভেতরে (গোপন কক্ষ) দুইটিতে মারব, এইডিটে (নৌকা) সরাসরি মারব।’

মিরপুর পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নেওয়া স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আরিফুর রহমান গত সোমবার রিটার্নিং কর্মকর্তাকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানিয়েছেন। এর অনুলিপি প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে পাঠিয়েছেন তিনি।
কুষ্টিয়ার মিরপুর পৌরসভায় ১৬ জানুয়ারি নির্বাচন হবে। সেখানে আওয়ামী লীগ ছাড়াও বিএনপির রহমত আলী রব্বান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফুর রহমান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বিজ্ঞাপন
আমি ভিডিওটা দেখেছি। গতকাল ওই প্রার্থীকে কার্যালয়ে ডেকে এ ধরনের বক্তব্য দেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলেছি। তিনি (মেয়র) তাঁকে (ইউএনও) বলেছেন, তাঁর কর্মী-সমর্থকদের বলে দেবেন এ ধরনের কাজ যেন না করে।
লিংকন বিশ্বাস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মিরপুর, কুষ্টিয়া

আওয়ামী লীগের এই প্রার্থীর একই ধরনের আরেকটি বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ বুধবার সকালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এই বক্তব্যটি তিনি গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৩ নম্বর ওয়ার্ডে এক পথসভায় দেন।

ওই পথসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এনামুল হক বলেছেন, ‘আগামী ১৬ তারিখ নির্বাচনে আপনারা যথারীতি সকাল সকাল গিয়ে একেবারেই আপনার ভোট আপনি দেবেন। আসলেই আপনি যদি ওপেন (ভোট) দেন, তাহলে কেউ নিষেধ করতে পারবে না। কারণ আপনি দিতে চাচ্ছেন, আরেকজনও দিতে চাচ্ছে। আরেকজন যখন ভেতরে ঢুকবে তখন কিন্তু তার সন্দেহ হবে। যখন বের হয়ে যাবেন তখন একে অপরকে গালাগালি করবেন। তাহলে আপনারা সব ওপেন করে দেন। আপনারা কাউন্সিলর ও অন্যান্য সংরক্ষিত আসনের ভোট ভেতরে দেবেন। এই ভোটটি (নৌকা) আপনারা সরাসরি এখানে (প্রকাশ্যে) দেবেন।’

ভোটার ও কর্মী-সমর্থকদের প্রকাশ্যে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বানের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র এনামুল হক প্রথম আলোকে বলেন,‘এটা এ রকম না। ভোটাররা কেউ যদি সাহসে প্রকাশ্যে ভোট দিতে চায় আপনি কি তার অধিকার থেকে বঞ্চিত করতে পারেন। আইন তো এ রকম না যে ভেতরেই (গোপন কক্ষে) দিতে হবে। ভেতরে দিতে হয় নিরাপত্তার জন্য। কেউ যদি সামনে দেয় তাহলে বাধার কী থাকতে পারে। আমি এ কথাটি হয়তো বলেছি। ভোটার যদি নিজেই সামনেই মারে (সিল), তাহলে আমার কিছু বলার নাই।’

মিরপুর পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমি ভিডিওটা দেখেছি। গতকাল ওই প্রার্থীকে কার্যালয়ে ডেকে এ ধরনের বক্তব্য দেওয়া থেকে বিরত থাকতে বলেছি। তিনি (মেয়র) তাঁকে (ইউএনও) বলেছেন, তাঁর কর্মী-সমর্থকদের বলে দেবেন এ ধরনের কাজ যেন না করে।’

মন্তব্য করুন