বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের উপপরিচালক দীন মোহাম্মদ বলেন, কর্তৃপক্ষের ইচ্ছা শিগগিরই বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার। তবে এর আগে সরকারের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়া হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানা গেছে, উপাচার্য লুৎফুল হাসান বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করছেন তিনি। প্রয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সিদ্ধান্তে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগে বিশেষ সিন্ডিকেট সভাও হতে পারে।

শিক্ষার্থীরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার জন্য শিক্ষার্থীরা মুখিয়ে আছেন। করোনাভাইরাসের কারণে বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও অনেক শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের আশপাশের মেসে অবস্থান করছেন। দু–একজন গোপনে হলেও থাকছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণকেন্দ্র জব্বারের মোড়ে দিনে ও সন্ধ্যায় শিক্ষার্থীরা জড়ো হতে শুরু করেছেন। সেখানকার রেস্তোরাঁগুলোতে শিক্ষার্থীদের ভিড় দেখা যায়।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ছাইফুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগে শিক্ষার্থীদের টিকা গ্রহণের বিষয়টি তাঁরা নিশ্চিত করতে চান। এ জন্য গুগল ফরমে তথ্য সংগ্রহের কাজ চলছে। অনেক শিক্ষার্থী গ্রামে থাকায় এ কাজ একটু বিলম্বিত হচ্ছে। তবে তাঁদের ধারণা, বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট সাত হাজার শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রায় সবাই করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণ করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন