সভা বন্ধ করতে রাবিতে ‌‘অবৈধ’ নিয়োগপ্রাপ্তদের তালা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
ফাইল ছবি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ফাইন্যান্স কমিটির সভা বন্ধ করতে উপাচার্যের বাসভবন ও প্রশাসন ভবনে তালা দিয়েছেন ‘অবৈধ’ নিয়োগপ্রাপ্তরা। আজ শনিবার সকাল নয়টার দিকে এই দুই ভবনে তালা দেন তাঁরা। আগামী মঙ্গলবার সিন্ডিকেট সভায় তাঁদের নিয়োগ বাতিল হতে পারে—এমন আশঙ্কায় আজকের সভাটি বন্ধ করতেই তালা দেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানাচ্ছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ১০টায় উপাচার্যের বাসভবনে ফাইন্যান্স কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হওয়া কথা ছিল। তবে সকাল নয়টার দিকেই ‘অবৈধ’ নিয়োগপ্রাপ্তরা প্রশাসন ভবন ও উপাচার্যের বাসভবনে তালা দিয়ে ভবন দুটির সামনে ও ক্যাম্পাসে অবস্থান নেন। পরে ফাইন্যান্স কমিটির সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান মুঠোফোনে আন্দোলনকারীদের জানান, আজকের সভাটি স্থগিত করা হয়েছে।

তালা দেওয়া পক্ষের মাহাফুজ আল আমিন প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমাদের নিয়োগ কেবল মহামান্য রাষ্ট্রপতি আর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটই বাতিল করতে পারেন। আমরা খবর পেয়েছি, কেবল আমাদের নিয়োগটি বাতিল করতেই বর্তমান রুটিন উপাচার্য আগামী মঙ্গলবার সিন্ডিকেট সভা ডেকেছেন। তাই মঙ্গলবারের সভাটি যেন না হতে পারে, সে জন্যই আমরা আজকের সভাটির বিপক্ষে এসেছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর মো. লিয়াকত আলী বলেন, আজকে ক্যাম্পাসে আশঙ্কা নিয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত যাঁরা এসেছেন, তাঁদের সংখ্যাটি খুবই কম। তবে কোষাধ্যক্ষ তাঁদের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা বলে আজকের সভা স্থগিত করার কথা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য আনন্দ কুমার সাহা ও কোষাধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এদিকে বেলা সোয়া ১১টার দিকে কোষাধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমানসহ কয়েকজন কর্মকর্তা উপাচার্যের বাসভবনে ঢোকেন। এতে ক্যাম্পাসে বিভিন্ন জায়গা থেকে নিয়োগপ্রত্যাশীরা এসে উপাচার্যের বাসভবন চত্বরে অবস্থান নেন। দুপুর ১২টায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাঁরা ক্যাম্পাসেই ছিলেন।