বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লিখিত বক্তব্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ বেলা দুইটায় নওগাঁ শহরের নওজোয়ান মাঠে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তাঁর বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে সমাবেশ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু একই সময়ে একই স্থানে জেলা যুবলীগও সভা আহ্বান করে। এরপর জেলা বিএনপি শহরের এ টিম মাঠে সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নেয়। সেখানে জেলা ছাত্রলীগ কর্মসূচির ঘোষণা দেয়। তার পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসন পুরো পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করেছে। গয়েশ্বর বলেন, ‘সরকারকে বলব, এসবের অর্থ কী, দেশবাসী সব বোঝে। বিএনপির সমাবেশে বিপুল জনসমাগমের উপস্থিতি টের পেয়ে সরকার পরিকল্পিতভাবে নাটক সৃষ্টি করে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।’

সোমবার বেলা তিনটা থেকে আগামীকাল বুধবার বেলা তিনটা পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে সমাবেশ স্থগিত করার ঘোষণা দেয় জেলা বিএনপি।

বিএনপির স্থানীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘যেহেতু আজ আমাদের সমাবেশ করার অনুমতি দেয়নি, তাই আগামী দিনে অনুমতি ছাড়াই এই নওগাঁতে সমাবেশ হবে। সেই ধরনের মানসিক প্রস্তুতি রাখতে হবে আপনাদের। স্থগিত হওয়া এই সমাবেশ যেকোনো সময় ডাকা হতে পারে। সেই সমাবেশ সফল করতে প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে।’

সরকারকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা করার আহ্বান জানিয়ে গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, ‘সময় থাকতে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন। নিরপেক্ষ সরকার এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। তা না হলে পালানোর পথটুকুও পাবেন না। এরই মধ্যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সেই পথও বন্ধ করে দিতে শুরু করেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা মিজানুর রহমান, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার, সহসাংগঠনিক সম্পাদক ওবায়দুল হক, নওগাঁ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি নজমুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল সোমবার সকালে একই স্থানে একই সময়ে বিএনপি ও যুবলীগ-ছাত্রলীগের সভা আহ্বান করায় নওগাঁ পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন। সোমবার বেলা তিনটা থেকে আগামীকাল বুধবার বেলা তিনটা পর্যন্ত নওগাঁ পৌরসভা এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ১৪৪ ধারা জারির পর গতকাল দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে পূর্বঘোষিত স্থানে সমাবেশ আয়োজনের ব্যাপারে অনড় থাকার ঘোষণা দেয় জেলা বিএনপি। তবে আজ সকালে সমাবেশ স্থগিত করার ঘোষণা দেয় জেলা বিএনপি।

এদিকে ১৪৪ ধারার কারণে আজ সকাল থেকেই নওগাঁ শহরের সঙ্গে দূরপাল্লা ও অভ্যন্তরীণ রুটে বাস ও অন্যান্য গণপরিবহন ঢুকতে দেয়নি পুলিশ। এতে সাধারণ মানুষ চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন