default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে দেলোয়ার হোসেন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের পাকশিমুল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পাল্টাপাল্টি ধাওয়ায় আহত হয়েছেন উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন।

নিহত দেলোয়ার হোসেন পাকশিমুল গ্রামের আবদুল হান্নানের ছেলে। তিনি সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক ছিলেন।

পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকালে পাকশিমুল গ্রামের কৃষক কাশেম মিয়ার জমিতে ধান কাটতে যান কয়েকজন শ্রমিক। ধানকাটা নিয়ে শ্রমিকদের মধ্যে সাহা আলী (৩৫) ও আজগর আলীর (২৫) মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে সাহা আলী গুরুতর আহত হন। তাঁকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার জেরে সন্ধ্যায় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেমকে নাজেহাল করেন সাহা আলীর পক্ষের সাইদুল ইসলাম ও তাঁর লোকজন। এ নিয়ে সন্ধ্যার পর পাকশিমুল বাজার এলাকায় সরাইল-অরুয়াইল সড়কে আবুল কাশেম ও সাইদুল ইসলামের পক্ষের লোকজনের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষের লোকজন দোলোয়ার হোসেনকে ছুরিকাঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাত নয়টার দিকে দেলোয়ারকে ঢাকায় পাঠানো হয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কাছাকাছি পৌঁছালে তিনি মারা যান। দোলোয়ার হোসেন আবুল কাশেমের পক্ষের লোক ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এদিকে দোলোয়ার হোসেনের মৃত্যুর খবর গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে তাঁর পক্ষের লোকজন প্রতিপক্ষের অন্তত ২০টি বসতবাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাট চালান। এ ঘটনার জন্য বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামকে দায়ী করেন পাকশিমুল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আবুল কাশেম। তিনি বলেন, তাঁর হুকুমেই এসব হয়েছে। তিনি এলাকায় একক আধিপত্য বিস্তার করতে চান।

এ বিষয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘এ ঘটনায় আমি মোটেও জড়িত নই। যিনি খুন হয়েছেন, তিনি আমাদের বংশের লোক। আমার সুনাম ক্ষুণ্ন করার জন্য সাবেক চেয়ারম্যান এসব বলে বেড়াচ্ছেন। শুনেছি, তিনি এ বছর চেয়ারম্যান প্রার্থী হবেন। এ জন্য তিনি এমনটি করছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৫০টি বসতবাড়ি কমবেশি ভাঙচুর ও লুটপাটের শিকার হয়েছে।’

নিহত যুবকের লাশ উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ এম এম নাজমুল আহমেদ। তিনি বলেন, এ ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখার জন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন